কতক্ষণ হওয়া উচিত আদর্শ যৌনতা?

77

যৌনতা একটি অপরিহার্য মানবিক প্রয়োজন। বিকৃত ও অনিরাপদ যৌনতা আপনার জন্য যেমন ঝুঁকিপূর্ণ; ঠিক একইভাবে সুস্থ ও বৈধ যৌনতা আপনার জন্য ভীষণ ইতিবাচক। এর স্বাস্থ্যগত ও মানসিক উত্‍কর্ষ আপনাকে দিতে পারে একটি উপভোগ্য ও আত্নবিশ্বাসী জীবন। তবে এজন্য আপনার প্রয়োজন হবে বিয়ের মত একটি সমাজ স্বীকৃত পন্থা; যার ভেতর দিয়ে আপনি এই কল্যাণগুলো অর্জন করতে পারবেন। চলুন এবার জানা যাক বৈধ যৌনতার উপকারি দিকগুলো।

দৃঢ় হবে সম্পর্কের ভিত্তি: যৌনতার সুখ আপনার সঙ্গীকে আপনার সাথে শক্তিশালী বন্ধণে আবদ্ধ করবে। পারস্পরিক ভুল বোঝাবুঝি ও দূরত্ব কমে গিয়ে বিবাহিত জীবনের স্থিরতা অনুভব করবেন। সুখময় এই দাম্পত্য আপনার চারপাশে বিনির্মাণ করবে এক অটুট পারিবারিক সম্পর্ক।

নিরবিচ্ছিন্ন হবে নিদ্রা: অনিদ্রা জনিত সমস্যায় ভোগে এমন মানুষের কমতি নেই পৃথিবীতে। অথচ একটি ভালো ঘুম আপনাকে দিতে পারে বিপুল কর্মস্পৃহা ও সুস্থ শরীর। আর এজন্য যৌন মিলনের চেয়ে ভালো কিছু পাওয়া কঠিন। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশান জানিয়েছে, সুস্থ যৌনতার দরুন হরমোন প্রল্যাকটিন অবমুক্ত হয়; ফলে মানসিক অবসাদ দূর হয়ে মানুষ ঘুমোতে পারে নিরবিচ্ছিন্নভাবে।

বৈজ্ঞানিক গবেষণা মতে, সপ্তাহে অন্তত দুইবার বৈধ যৌন মিলনের ফলে হৃদযন্ত্রের কর্মপ্রক্রিয়া থাকবে সহজাত ও সুন্দর। পাশাপাশি স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি থেকেও নিরাপদ থাকবে আপনার হৃদযন্ত্র। যে কয়টি ভালো এক্সার সাইজ মানুষের হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখতে পারে যৌন মিলনকে তার অন্যতম প্রধান বলে উল্লেখ করেছে সংস্থাটি।

কমে যাবে মানসিক চাপ: প্রতিদিন জীবনের স্বাভাবিক তত্‍পরতায় আমাদের মনে জমা হয় বিভিন্ন ধরনের স্ট্রেস ও পেইন। এতে করে বিষন্নতা, একাকিত্ব, মানসিক অস্থিতিশীলতাসহ অনেক প্রকার নেতিবাচক ঘটনার উত্‍পত্তি হয়, যা সুস্থ জীবন-যাপনের জন্য ক্ষতিকারক। বৈধ যৌনতার সংস্পর্শে আপনার এই সব প্রতিকূল অনুভূতিগুলো দূর হয়ে যাবে। মানসিক চাপগুলো সরে গিয়ে আপনি অনুভব করবেন প্রফুল্লতা ও উচ্ছাস।

থাকবে না প্রোস্টেট ক্যানসারের ঝুঁকি: ইউরোপিয়ান ইউরোলজি জার্নালের গবেষণা মতে, ‘প্রোস্টেট ক্যানসারের মত ভয়াবহ অসুখ থেকে বাঁচতে হলে বিকল্প নেই সুস্থ যৌনতার’। যারা নিয়ম মাফিক মিলনে অভ্যস্ত তাদের ক্ষেত্রে এই রোগ না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

নিয়ন্ত্রণে থাকবে উচ্চ রক্তচাপ: যৌন মিলনে সাধারণত রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া দ্রুত হয়। এর ফলে মেন্টাল স্ট্রেস কমে গিয়ে বজায় থাকে হৃদযন্ত্রের সহজাত কর্মপ্রক্রিয়া। আর হৃদপিন্ড স্বাভাবিক থাকলে উচ্চ রক্তচাপও কমে গিয়ে স্বাভাবিক অবস্থা বিরাজমান থাকে। ফলে যারা হাই ব্লাড প্রেসারে আক্রান্ত তাদের জন্য বৈধ যৌন মিলন হতে পারে একটি নিরাময় প্রক্রিয়া।

তবে যৌনতা কতক্ষণ স্থায়ী হওয়া উচিত, এ বিষয়টি নিয়ে বহু মানুষেরই প্রশ্ন রয়েছে। তবে এ বিষয়ে অনেকেরই ভুল ধারণা রয়েছে। যৌনতার সঠিক কত সময়ব্যাপী হতে পারে, এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা কী বলেন? এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ইনডিপেনডেন্ট।

অনেকেই দ্রুত বীর্যস্খলনের সমস্যায় ভুগছেন বলে চিকিৎসকের কাছে আসেন। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যৌনতার নির্দিষ্ট কোনো সময় নেই। তবে যৌনতার গড় সময় হিসাব করতে গেলে অনেকের মাঝেই বিভ্রান্তি তৈরি হতে পারে। কারণ যৌনতার প্রস্তুতির বিষয়টি এর সঙ্গে জড়িত।

যৌনতা শুধু একে অপরের যৌনকর্ম নয়। এতে আগে ও পরে আরও কিছু কর্মকাণ্ড হওয়া উচিত। নিজেদের মাঝে পারস্পরিক বোঝাপড়ায় কাছে আসা ও ফোরপ্লের এসব কর্মকাণ্ড যৌনতার অংশ বলেই ধরা যায়।

৫০০ দম্পতির ওপর জরিপে দেখা গেছে তাদের যৌনতার বিভিন্ন ব্যাপ্তি রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে রয়েছে ৩৩ সেকেন্ড থেকে শুরু করে ৪৪ মিনিট পর্যন্ত। শুধু যৌনতার সময়টি হিসাব করলে এটি হবে ৫ দশমিক ৪ মিনিট।

যারা বিশেষজ্ঞের কাছে আসেন দ্রুত বীর্যপাত সমস্যায় তাদের জন্য বিষয়টি কিছুটা বিভ্রান্তিকর। কারণ তাদের পুরোপুরি যৌন সন্তুষ্টির আগেই বীর্যপাত হয়ে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে জেনে রাখা উচিত যে, যৌনতা শুধু একটি কাজ নয়। এ ক্ষেত্রে বেশ কিছু সময় ধরে ঘনিষ্ঠ হয়ে থাকা প্রয়োজনীয়। এ কাজগুলো যৌনতারই অংশ। সরাসরি যৌনতার আগে পর্যাপ্ত যৌন উত্তেজনা সৃষ্টির মাধ্যমে সে পরিস্থিতি তৈরি করা উচিত।

এ ছাড়া যৌনতার সময়টি দীর্ঘ করতে চাইলে পুরুষের ক্ষেত্রে সমাধান হলো অনুশীলন। কিছুটা অনুশীলন করলেই তা দীর্ঘায়িত করা সম্ভব। এতে সমস্যার সমাধান না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে নারীরও সমস্যা হয়। কারণ নারীর যৌনতা অনেকাংশেই সঙ্গীর ওপর নির্ভরশীল। নারীর জন্য সরাসরি যৌনতা শুরু করা বিব্রতকর। তার আগে কিছু সময় ফোরপ্লের মাধ্যমে পর্যাপ্ত উত্তেজনা আনা প্রয়োজন। এতে নারীর যৌন সন্তুষ্টি সহজ হয়।

এ ক্ষেত্রে আপনার যদি যৌন সন্তুষ্টি না হয় তাহলে যৌন পরিবেশের দিকে লক্ষ রাখতে হবে এবং যথেষ্ট ফোরপ্লে করতে হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যৌনতার সময় বড় বিষয় নয়। কারণ গড়ে তা সাড়ে পাঁচ মিনিটেরও কম স্থায়ী হয়। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আপনার যৌন সন্তুষ্টি হচ্ছে কি না, সেটি দেখা।

সূত্র: এভরিডে হেল্থ ডটকম