ঘূর্ণিঝড় ফনি – বড় ধরনের দুর্যোগকে জাতীয় দুর্যোগ দিবস ঘোষণা করা হউক

60
অনেক উপকূলীয় অঞ্চলবাসীকে বাড়ী ঘর থেকে সরিয়ে নেয়ার আপ্রান চেষ্টা করেও সরানো যাচ্ছে না । আসলে গ্রামীণ জীবনযাত্রার এই মানুষগুলোর সম্পদ হচ্ছে এই ভাঙ্গা ঘর, হাঁসমুরগি, গরুছাগল ইত্যাদি। এগুলিকে রক্ষা করতে না পারলে তাদের সামনের জীবন কতটা দুর্বিষহ তা শহরবাসীরা বুঝবে না ।
আর অল্প কিছুদিন পর সারাদেশে ধান উঠার মৌসুম । এই ঝড় তাদের ক্ষেতের পাকা ফসল ধ্বংস করে দিয়ে একেবারে সর্বস্বান্ত করে দিবে । ঝড়ের পরে সামান্য রিলিফ ও কিছু গবেষণার খোরাক নিয়ে নগরবাসী কিছুদিন আনাগোনা করবে । তারপর আর কেউ কোন খোঁজখবর রাখবে না এই সমস্ত প্রান্তিক কৃষক – গরীব মানুষদের ।
এই ধরনের ঘূর্ণিঝড়কে জাতীয় দুর্যোগ দিবস ঘোষণা করে প্রতি বছর সেই দিবসটি পালন করলে ক্ষতিগ্রস্থ উপকুলবাসী সরকারীভাবে অনেক উপকৃত হবে ।