চিরনিদ্রায় অগ্নিদগ্ধ নুসরাত

51

শেষ পর্যন্ত চির নিদ্রায় চলে গেলেন ফেনীর সোনাগাজীর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা ছাত্রী অগ্নিদগ্ধ নুসরাত । বুধবার রাত ৯টা ৩০ মিনিটে মারা যান তিনি। জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রাফির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। লাইফ সাপোর্টও তেমন কাজ করছিল না। এরপর চিকিৎসকরা তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টায় রাফির চিকিৎসার বিষয়ে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন মেডিকেল বোর্ড। এরপরই সকাল সোয়া ১০টা থেকে দুই ঘণ্টাব্যাপী তার অস্ত্রোপচার চলে। লাইফসাপোর্টে রেখেই দুই ঘণ্টাব্যাপী এই অস্ত্রোপচার করা হয়।

গত ৬ এপ্রিল (শনিবার) সকালে রাফি আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে যান। এ সময় মাদরাসার এক ছাত্রী তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের উপর কেউ মারধর করছে- এমন সংবাদ দিলে তিনি ওই বিল্ডিংয়ের চার তলায় যান। সেখানে মুখোশ পরা চার-পাঁচজন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। রাফি অস্বীকৃতি জানালে তারা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে  পালিয়ে যায় ।

অপরদিকে নুসরাত হত্যার হুকুমদাতা ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামের পক্ষে বোরকা পরিহিত কিছু নারীর মিছিলের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে । কেউ কেউ মিছিলের এই ঘটনাকে ধৃষ্টতাপূর্ণ বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মন্তব্য করে বলেন, মাদ্রাসার অধ্যক্ষের পক্ষে মিছিল করতে পারা রাষ্ট্রের দুর্বলতাকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় ।