ভাষাসৈনিক প্রিন্সিপাল আশরাফ হোসাইন ফারুকী চলে গেলেন না ফেরার দেশে

0
11
অনিন্দ্যবাংলা : জাতীয় অঙ্গণের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, ভাষাসৈনিক, প্রিন্সিপাল আশরাফ ফারুকী গত রাত ১০টায় সকলকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বয়স্কজনিত রোগে ভোগছিলেন।
একজন প্রবীণ শিক্ষাবীদ ও ভাষাসৈনিকের মৃত্যুতে এলাকায় শোক নেমে আসে। জামালপুর জেলার নিজ গ্রাম দিগপাইত, জামতলীতে বাদ যোহর মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, নয় সন্তান, নাতি-নাতনী সহ অসংখ্য শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন।
নয় সন্তানের মধ্য মুস্তাসীম বিল্লাহ ফারুকী বাংলাদেশ সরকারের কর কমিশনার ও রোটারিয়ান, মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী বর্তমানে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রনালয় এর যুগ্নসচিব (ময়মনসিংহের সাবেক জেলা প্রশাসক), মোজাহিদ_বিল্লাহ ফারুকী, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ, মুয়াহিদ বিল্লাহ ফারুকী, ফিল্ড রিসার্চ স্পেশালিষ্ট পি পি আর সি, মুয়াহিদ বিল্লাহ ফারুকী, এক্সিকিউটিভ অফিসার (প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড), মুজতাহিদ ফারুকী (বাবু) ও  গালিব ফারুকী, ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার ও নন্দিত শিল্পী।
মেয়েদের মধ্য, মাজকুরা নাজনীন (উর্মি), ডেপুটি ডিরেক্টর (মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদপ্তর), নাসরিন জাহান, নিউজ এডিটর (নয়া দিগন্ত)।
প্রিন্সিপাল আশরাফ ফারুকী জামালপুর উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কেটেছে তার শিক্ষাজীবন। শিক্ষকতা ছাড়াও কর্মজীবনে তিনি ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এছাড়া বাংলা একাডেমি পরিচালনা পর্ষদের চারবারের নির্বাচিত সদস্য ছিলেন তিনি। ছাত্রজীবনে তমুদ্দিন মজলিশ কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। সাহিত্যকর্মেও রেখেছেন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here