Logo

ঈশ্বরগঞ্জে সেই সড়কটি রক্ষায় কাজ শুরু

অনিন্দ্যবাংলা
রবিবার, জুলাই ২৬, ২০২০
  • শেয়ার করুন

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ব্রহ্মপুত্র নদের গর্ভে বিলীন হবার মুখে পড়া সড়কটি রক্ষায় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে সড়কটি রক্ষায় কাজ শুরু হয়েছে। এতে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া থেকে রক্ষা পেয়েছে ২০ হাজার মানুষ।

উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের সর্ববৃহৎ গ্রাম মরিচারচর। ব্রহ্মপুত্র নদের কোল ঘেঁষা গ্রামটিতে ভেতর দিয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) একটি সড়ক রয়েছে। নদের ভাঙনের মুখে থাকা পাকা সড়কটির মরিচারচর বালুর ঘাট এলাকায় শনিবার সকালে ভাঙন দেখা দেয়। অন্তত ৫০ মিটার পাকা সড়ক সকালে মুহূর্তেই নদে বিলীন হয়। এতে সড়কটি দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের ঝুঁকির মুখে পড়ে মরিচারচর টান মলামারি মুন্সিবাড়ি, টান পাড়া, মাইজপাড়া, নাউ মলামারি, মাঠপাড়া, মুন্সিবাড়ি, নামাপাড়া, উত্তর মরিচারচর, কাশিয়ার চর, দপ্তর, বড়ইকান্দি, আজু সরকার পাড়া, মলামারি, টুন পাড়া, বড়ইকান্দা, কাঠালিপাড়া এলাকার ২০ হাজার মানুষ। খবর পেয়ে শনিবার সরেজমিন পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন। বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসককে অবগত করা হয়। তারই প্রেক্ষিতে সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসক পানি উন্নয়ন বোর্ড, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর সাথে কথা বলে দ্রুততর সময়ের মধ্যে সড়কটি রক্ষায় উদ্যোগ নেন।

শনিবার রাত থেকে সড়কটি রক্ষায় কাজ শুরু করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। ২ হাজার জিও ব্যাগ ফেলে রাস্তাটি রক্ষা করা হচ্ছে। সঠিকভাবে কাজ হচ্ছে কিনা তা রোববার দুপুরে তদারকি করতে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন। এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নূরুল হুদা খান, স্থানীয় চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ২০ হাজার মানুষের চলাচলের সড়কটি রক্ষায় উদ্যোগ নেওয়ায় মানুষ হাফ ছেড়ে বেঁচেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন বলেন, সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসকের প্রচেষ্টায় দ্রতমতম সময়ের মধ্যে সড়কটি রক্ষায় কাজ শুরু হয়েছে। এতে ২০ হাজার মানুষের যোগাযোগের সড়কটি রক্ষা পেল।