Logo

ন্যায্য অধিকার আদায়ে আজীবন সংগ্রামী ছিলেন অ্যাড. আনিসুর রহমান খান

অনিন্দ্যবাংলা
রবিবার, অক্টোবর ১৮, ২০২০
  • শেয়ার করুন

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক : বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ, বরেণ্য আইনজীবী, ময়মনসিংহ বিভাগ বাস্তবায়নে প্রধান পূরোধা, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়ন পরিষদ পরিষদ, জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সর্বজন শ্রদ্বেয় বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খান ছিলেন বৃহত্তর ময়মনসিংহের অভিভাবক। তিনি সারাটি জীবন অনিয়ম দুর্নীতি ও জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছেন। তিনি জীবনে কখনো ক্ষমতার স্বাদ পাওয়ার জন্য রাজনীতি করেননি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাকে এমপি বানাতে চেয়েছিলেন কিন্তু আইন পেশায় ক্ষতি হবে ভেবে তিনি এমপির মনোনয়ন গ্রহন করেনি। তিনি ছিলেন নির্লোভ, নির্মোহ, অহংকার হীণ পরোপকারী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন সত্যিকারের কর্মী। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ যাতে চির জাগরুক থাকে তার জন্য তিনি নানাভাবে কাজ করেছেন আমৃত্যু। তার ঋণ কোনোদিন শোধ করা যাবে না। তার কর্ম সমাজে বেচে থাকবে চিরদিন। সকলেই তার জান্নাত কামনা করেন।

ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খান স্মরণে ১৭ অক্টোবর রাতে এক নাগরিক শোকসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

জেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা নাগরিক আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট এএইচএম খালেকুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমিন কালাম ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী আজাদ জাহান শামীমের পরিচালনায় স্মরণসভায় অংশ নেন সংসদ সদস্য নাজিম্ উদ্দিন আহমেদ এমপি, মুনিরা সুলতানা মনি এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, মহানগর আওয়ামীলীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা সিপিবি সভাপতি অ্যাডভোকেট এমদাদুল হক মিল্লাত, মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি জাহাঙ্গীর আহমেদ, মরহুম অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খানের জৈষ্ঠ্য পূত্র খান মেহেদী হাসান, অধ্যাপক খান সাদী হাসান ও জামাতা ফরিদ আহমেদ, পিপি (নারী ও শিশু ) অ্যাডভোকেট বদর আহমেদ, অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন খান, ডাঃ হরিশংকর দাস, ডাঃ এইচ এ গোলন্দাজ তারা, এএম কলেজে উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক নূরুল আবসার, ড. মোঃ সিরাজুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু, অ্যাডভোকেট শিব্বির আহমেদ লিটন, আব্দুর রশিদ, অধ্যক্ষ সামসুল বারী, ফয়জুর রহমান, শাহ সাইফুল আলম পান্নু, প্রদীপ ভৌমিক, অধ্যাপক দিলরুরা শারমিন, মনিরা বেগম অনু, ইয়াজদানী কোরায়শী কাজল, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম শহীদ, খন্দকার ফারুক আহমেদ, আফতাব উদ্দিন, বিমল পাল, মনিরুল ইসলাম লিটন, সৈয়দা রোকেয়া আফসারি শিখা, আব্দুল কাদের মুন্না প্রমূখ।

এর আগে মরহুম অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খানের রুহের মাগফেরাত কামনা কওে বিশে ষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খান গত ১২ আগষ্ট নিজ বাসায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালের তিনি স্ত্রী, ৫পূত্র ও এক কণ্যা, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও ভক্ত রেখে গেছেন। তিনি ময়মনসিংহ শহরের মনমোহন নিয়োগী রোড পন্ডিত পাড়াস্থ ‘ফেরদৌস’ নামীয় বাড়িতে বসবাস করেন।

অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান খান ১৯৩৫ সালের ১ লা নভেম্বর নেত্রকেণার মেদনী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের জন্ম গ্রহন করেন। নেত্রকোণা আঞ্জুমান হ্ইা স্কুলের হেলাল উদ্দিন আহম্মদ তার অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান খানের পিতা এবং মাতা নাম সায়দাতুন্নেসা খানম ।