Logo

সোনার মেডেল পাওয়া ইঁদুর !

অনিন্দ্যবাংলা
শনিবার, জুন ৫, ২০২১
  • শেয়ার করুন

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক :  ইঁদুরের নাম  মাগাওয়ারা।   মানুষের জীবন বাঁচানোর পাশাপাশি সাহসিকতার জন্য সোনার মেডেলও পেয়েছিল এই আলোচিত ইঁদুর। কম্বোডিয়াজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁতে রাখা স্থলমাইন পাঁচ বছর ধরে সাফল্যের সঙ্গে খুঁজে বের করা সে প্রাণীটি এবার অবসরে যাচ্ছে। ইঁদুরটি কর্মজীবনে ৭১টি স্থলমাইন ও ৩৮ ধরনের অবিস্ফোরিত বোমার সন্ধান দেয় মাগাওয়া।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর বীরত্বের স্বীকৃতি দিতে মাগাওয়াকে সোনার মেডেল দেয় যুক্তরাজ্যভিত্তিক পশুবিষয়ক দাতব্য সংস্থা দ্য পিপলস ডিসপেন্সারি ফর সিক অ্যানিমেলস (পিডিএসএ)।

এপিওপিওর জানায়, পরিশ্রমী ইঁদুরটি চলতি বছরের শেষের দিকে সাত বছরে পা দেবে। কয়েক বছর ধরে সে অনেক কাজ করেছে । এখন তার বিশ্রামের প্রয়োজন। মাগাওয়ার শারীরিক অবস্থা বেশ ভালো। তবে তার অবসরে যাওয়ার সময় এসেছে। তার কর্মক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। এখনই তার অবসরে যাওয়া দরকার। মাগাওয়ারার আদিবাস আফ্রিকায়। আকৃতি বা ওজন অন্যান্য ইঁদুরের চেয়ে বেশি হলেও চলাফেরায় এরা সাবধানী। কখনও স্থলমাইনে পা দেয় না।

কম্বোডিয়ার ২ লাখ ২৫ হাজার বর্গমিটার মাটি স্থলমাইন ও বোমামুক্ত করতে এপিওপিওকে বিশেষ সহায়তা করে মাগাওয়া।

বিশেষ এ গুণের কারণে মাগাওয়া ও তার মতো অন্যান্য ইঁদুরকে প্রশিক্ষণ দেয়া শুরু করে এপিওপিও। স্থলমাইনে ব্যবহৃত বিস্ফোরক ক্যামিক্যালের গন্ধ শোঁকার মাধ্যমে স্থলমাইন শনাক্ত করা এবং স্থলমাইনের অবস্থানের বিষয়ে জানান দেয়া প্রশিক্ষণের প্রধান কাজ।

কম্বোডিয়ার স্থানীয় জনগণকে তাদের জীবন বা অঙ্গপ্রত্যঙ্গ হারানোর ভীতি ছাড়াই সুস্থভাবে জীবনধারণে সহযোগিতা করায় মাগাওয়ার প্রশংসা করে এপিওপিও। খুব অল্প বয়স থেকে এ ধরনের ইঁদুরকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।