Logo

৪০ শতাংশ কমে গেলো ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের হোল্ডিংট্যাক্স !

অনিন্দ্যবাংলা
বুধবার, জুন ৩০, ২০২১
  • শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ : ৪০ শতাংশ কমে গেলো ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের হোল্ডিংট্যাক্স । ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম এসেসমেন্টের মাধ্যমে আরোপিত ২০১৯ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত দাবিকৃত হোল্ডিং ট্যাক্স হতে ৪০% হ্রাসকরণ এবং ২০২০-২০২১ অর্থবছরের আদায়যোগ্য হোল্ডিং করের উপর ১০% অতিরিক্ত রিবেট ঘোষণা দিয়েছেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের জনবান্ধব মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু।

এছাড়াও ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের বকেয়া হিসেবে দাবিকৃত হোল্ডিং ট্যাক্সও মওকুফ ঘোষণা করেন। সেই সাথে রিভিউ (আপত্তি) ফরমের মূল্য ৬০০/- থেকে ২০০/- টাকায় পুনঃনির্ধারণ করা হয় এবং ইতোমধ্যে যারা ফর্ম ক্রয় করেছেন তাদের ফর্মের অতিরিক্ত মূল্য ট্যাক্সের সাথে সমন্বয় করা হবে । এছাড়াও সিটির সকল কাঁচাবাড়ির হোল্ডিং ট্যাক্স সম্পূর্ণ মওকুফের ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র টিটু।

বুধবার দুপুরে শহিদ শাহাবুদ্দিন মিলনায়তনে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটুর সভাপতিত্বে হোল্ডিং ট্যাক্স সংক্রান্ত এক বিশেষ সভায় এই সিদ্ধান্তসমূহ নেয়া হয়। ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলন ও উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদসহ অন্যান্য রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের দাবীর প্রেক্ষিতে জনবান্ধব ও জননন্দিত মেয়র টিটু জনদাবীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেন।

মেয়র টিটু আরও জানান কেউ ঋণের মাধ্যমে বাড়ি নির্মাণ করলে, অধিক পুরাতন বাড়ি হলে, তথ্য বা পরিমাপগত ভুল থাকলে রিভিউয়ের মাধ্যমে বিবেচনার যোগ্য হবেন।

এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, সম্মানিত নাগিরিকবৃন্দের বিষয়কে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এ সিদ্ধান্ত সমূহ গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি আশা করেন অতীতের মত ভবিষ্যতেও নাগরিকবৃন্দ সিটি কর্পোরেশনের পাশে জনপ্রত্যাশা পূরণে সহযোগিতা করবেন।

সভায় প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা সেঁজুতি ধর সহ সিটি কর্পোরেশনের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলন ও উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদসহ অন্যান্য রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের দাবীর প্রেক্ষিতে জনদাবীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আরোপিত হোল্ডিং ৪০% হ্রাস এবং রিভিউ ফরমের মূল্য ৬০০ টাকা থেকে হ্রাস করে ২০০ টাকায় পূনঃনির্ধারণসহ নাগরিকদের অন্যান্য সুবিধাদি প্রদান করায় জনবান্ধব ও জননন্দিত মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটুসহ কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাদের প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন ও শুছেচ্ছা জানিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম এসেসমেন্টের মাধ্যমে আরোপিত হোল্ডিং ট্যাক্স অস্বাভাবিক হওয়ায় তা করে নাগরিকদের সহনীয় পর্যায়ে পূনঃনির্ধারণ এবং রিভিউ ফরমের মূল্য ৬০০ টাকা থেকে হ্রাস করার দাবিতে ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলন ও উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ গত ৭ জুন মসিক মেয়রকে স্মারকলিপি প্রদান করেন। এসময় হোল্ডিং ট্যাক্স পূনঃনির্ধারণ এবং আপত্তি ফরমের মূল্য হ্রাসের বিষয়ে সক্রিয় বিবেচনার ঘোষণা দেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের (মসিক) মেয়র ইকরামূল হক টিটু।

আরো পড়ুন : বার্ষিক কত শতাংশ কর দিতে হবে : মূল্যায়নের অঙ্কের ওপর ১২ শতাংশ হারে বাষিক কর ধার্য করা হয়। ১২ শতাংশ করের মধ্যে ৭ শতাংশ হোল্ডিং কর, ২ শতাংশ পরিচ্ছন্ন কর ও ৩ শতাংশ বাতি কর। মূল্যায়ন কি : যে পদ্ধতির মাধ্যমে বাড়ির বা ফ্ল্যাটের হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণ করা হয় তাই মূল্যায়ন।

মূল্যায়ন কি : যে পদ্ধতির মাধ্যমে বাড়ির বা ফ্ল্যাটের হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণ করা হয় তাই মূল্যায়ন। যেমন- আপনার অঞ্চল হচ্ছে গাঙ্গিনাপাড়। আপনার মেইন রোডের পাশে একটি ১২০০ বর্গফুটের আবাসিক ফ্ল্যাট রয়েছে। এখানে প্রতি বর্গফুটের জন্য মাসিক ৬.৫০ হারে পাকা বাড়ির ট্যাক্স দিতে হবে। তাহলে ৬.৫০ হলে ১২০০ বর্গফুটে আসে ৭৮০০ টাকা। এর সঙ্গে ১০ মাস (১২ মাস থেকে ২ মাস বাদ দিতে হবে) গুণ করলে আসবে ৭৮ হাজার টাকা। ৭৮ হাজার টাকাকে ১২ দিয়ে ভাগ করতে হবে। তাহলে আসবে ৬৫০০ টাকা করে। যেহেতু তিন মাস পর পর কর দিতে হয় সেহেতু ৬৫০০ টাকাকে ৪ দিয়ে ভাগ করলে ১৬২৫ টাকা আসে। অর্থাৎ তিন মাস পর পর আপনাকে ১৬২৬ টাকা কর দিতে হবে। মূল্যায়ন নির্ধারণ না করে কর ধার্য করা যায় না।

কর নির্ধারণকালে করদাতা যেসব সুবিধা পান :

ক. আপনি যদি নিজের ফ্ল্যাটে/আবাসিকে বসবাস করেন তাহলে ৪০ শতাংশ ট্যাক্স আপনাকে দিতে হবে না।

খ. আপনি যদি আপনার বাড়ি/ফ্ল্যাট ঋণ নিয়ে তৈরি করেন তাহলে বার্ষিক ঋণের সুদ মূল্যায়ন করার সময় বাদ দিয়ে কর ধার্য করা হয়।

গ. আপনার যদি মনে হয় আপনার কর বেশি ধার্য করা হয়েছে তাহলে আপনি কর পর্যালোচনা পরিষদের রিভিউ আবেদন করলে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ মূল্যায়ন হ্রাস করার পর কর ধার্য হবে।

ঘ. এরপরও যদি আপনার মনে হয় যে আপনার কর ধার্য করা ঠিকমতো হইনি সে ক্ষেত্রে বিভাগীয় কমিশনার আদালতে আপিল করা হলে আরও সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ মূল্যায়ন হ্রাস কর ধার্য করা হবে।

হোল্ডিং ট্যাক্স রিভিউ করলে সর্বোচ্চ ১৫% পর্যন্ত কমানো যায়।
নির্ধারিত “পি ফরম” পূরণ করে রিভিউ আবেদন দাখিল করলে কর পর্যালোচনা পরিষদ (Assessment Review Board) আপনার বার্ষিক মূল্যায়ন সর্বোচ্চ ১৫% পর্যন্ত হ্রাস করে দিতে পারে।
তবে মনে রাখবেন, হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণের পর আপনি যখন নোটিশ পাবেন তার ৩০ দিনের মধ্যে আপনাকে রিভিউ আবেদন করতে হবে।
উল্লেখ্য যে, সিটি কর্পোরেশন কর তফসিল ২০১৬ অনুযায়ী ইমারত ও জমির উপর কর ৭%, ময়লা নিষ্কাশন রেইট ৭%, সড়ক-বাতি ৫% ও স্বাস্থ্য কর ৮% অর্থাৎ সর্বমোট ২৭% কর ও রেইট নেওয়ার বিধান রয়েছে।