Logo

পহেলা ফাল্গুনে জমজমাট ফুলের বাজার

অনিন্দ্যবাংলা
শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২১
  • শেয়ার করুন

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক: পহেলা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে রাজধানীর ফুলের বাজারে জমজমাট বেচাকেনা। পাইকারিতেই শুধু প্রায় ৫৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান ফুল ব্যবসায়ীরা। প্রত্যাশা পূরণ হলে করোনার মধ্যে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব বলে মনে করছেন তারা। তবে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার দাম বেড়েছে বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।

যশোরর ঝিকরগাছার গদখালীতে রয়েছে ফুলের পাইকারি বাজার। ঢাকা, চট্টগ্রামসহ সারা দেশে যায় এখানকার ফুল। পয়লা ফাল্গুন, ভালোবাসা দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে গদখালী মোকামে আগামী কয়েক সপ্তাহ ফুলের বেচাকেনা বাড়বে বলে আশা করেন স্থানীয় ফুলচাষি ও ব্যবসায়ীরা।

পহেলা ফাল্গুনসহ তিন দিবসকে কেন্দ্র করে চাঙা হয়ে উঠেছে ফুলের বাজার। এ ছাড়া আসছে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের স্মরণে সবার হাতে থাকবে ফুল।

বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার (ফুল) সোসাইটি সূত্রে জানা যায়, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় দেশে ফুলের উৎপাদন ভালো হয়েছে। এ কারণে বসন্তবরণ, ভালোবাসা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কৃষক, পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে দেশে ২০০-২৫০ কোটি টাকার ফুলের বাণিজ্য হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর মধ্যে মাঠপর্যায়ে যশোরের গদখালি ও সাভারের সাদুল্লাহপুরসহ কয়েকটি স্থানে ৮০-৯০ কোটি টাকার বাণিজ্য হবে। বাকিটা হবে রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য স্থানে।

খুচরা ফুল ব্যবসায়ীরা জানান, একটি গোলাপ ২৫ থেকে ৪০ টাকা, আর একটু বড় সাইজের গোলাপ ৫০-৮০ টাকা, জারবেরা ৩০ থেকে ৫০ টাকা, গাডিওলাস ২০ থেকে ৩৫ টাকা ও রজনীগন্ধা প্রতি স্টিক ১০-১৫ টাকা দরে বেচাকেনা হচ্ছে।

আর গাঁদা ফুলের মালা বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৮০ টাকা দরে। এ ছাড়া বিভিন্ন ধরনের ফুল দিয়ে সাজানো তোড়া বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে দুই হাজার টাকায়, যা অন্য সময়ের চেয়ে দাম একটু বেশি।